স্মার্ট ডিভাইস

১৩ লক্ষ টাকার স্মার্টফোন Sirin Solarin

আপনার কাছে আপনার প্রাইভেসি বা গোগনীয়তার মূল্য কত? Sirin Labs নামক লন্ডন ভিত্তিক একটি কোম্পানি প্রাইভেসি এবং নিরাপত্তা এর কথা মাথায় রেখে বিশেষায়িত স্মার্টফোন তৈরী করছে ; তাদের জন্য যাদের কাছে তাদের প্রাইভেসি,গোপনীয়তা এবং নিরাপত্তা এর মূল্য অনেক। বিশেষ করে রাষ্ট্র প্রধান, বড় বড় ব্যবসায়ীদের জন্যএই বিশেষায়িত স্মার্টফোন তৈরি।যার দাম ১৬ হাজার ডলার বা ১২লাখ ৮০ হাজার টাকা!
স্মার্টফোনটির নাম Solarin। এটিতে অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে এন্ড্রয়েড (ললিপপ ৫.১)থাকলেও ; এর কাস্টম রোম টি সম্পূর্নভাবে Solarin Labs এর তৈরী এবং সিকিউরিটির কথা মাথায় রেখে বিশেষ ভাবে প্রোগ্রাম এবং কাস্টমাইজড করা।
এতে রয়েছে ৫.৫ ইঞ্চি ডিসপ্লে। যেটি সম্পূর্নভাবে টার্চস্ক্রীন। প্রোটেকশন হিসেবে রয়েছে গরিলা গ্লাস। এটি ১৪৪০*২৫৬০ পিক্সেল এর একটি ডিসপ্লে।
এতে আলাদা ভাবে কোন এসডি কার্ড লাগানো যাবে না ; তবে এতে ইন্টারনাল ১২৮ জিবি স্টোরেজ দেয়া হবে। থাকবে 4 GB Ram। প্রোসেসর হিসেবে থাকবে কুয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৮১০ অক্টাকোর প্রোসেসর।
মেইন ক্যামেরা হিসেবে থাকবে ২৩.৮ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা ; সাথে ভালো মানের প্লাস। ফ্রন্টে সেলফির জন্য থাকবে ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা।
NFC, WiFi, Bluetooth,Headphone ইত্যাদি সুবিধা থাকবে ঠিকই কিন্তু একটি ১ টি সীম লাগানো যাবে ; আর ২ জি /৩ জি/ ৪ জি সব নেটওয়ার্ক সাপোর্ট করবে।
সেন্সর হিসেবে স্মার্টফোনটিতে ৭টি সেন্সর থাকবে। এগুলো হল : টেম্পারেচার সেন্সর, ব্যারোমিটার,জাইরোস্কোপ,কম্পাস সেন্সর, এমবিয়েন্ট লাইট সেন্সর, প্রোক্সিমিটি সেন্সর এবং এক্সেলেরোমিটার সেন্সর।
এই স্মার্টফোন এর বড় বিশেষত্ব হচ্ছে এর সিকিউরিটি। এই স্মার্টফোনে রয়েছে বিশেষ সিকিউরিটি মোড আর যেখান থেকে এই স্মার্টফোন থেকে বের হওয়া সকল তথ্য encrypted অবস্হায় থাকে এবং কেবল অন্য একটি Solarin স্মার্টফোনে গিয়ে সেটি encrypted মুক্ত হবে।তাই তৃতীয় পক্ষের কারো দ্বারা এই স্মার্টফোন এর কার্যবিধি ট্র্যাক করা সম্ভব নয়।
দ্বিতীয় যে জিনিসটি গুরুত্ব দেয়া হয়েছে তা হল এর ডিজাইন ; স্মার্টফোনটি সম্পূর্ণ মেটাল এবং ফাইবার গ্লাস দিয়ে দিয়ে তৈরী ; সুতরাং ব্লিট কোয়ালিটি কেমন এবং কী মানের তা নিশ্চয়ই ধারনা করা যায়। স্মার্টফোনটি মোটা হলেও এতে একটি রাজকীয় বা প্রিমিয়াম ভাব রয়েছে। হার্ডওয়্যার এর দিক দিয়েও স্মার্টফোনটি যথেষ্ঠ প্রিমিয়াম।স্ন্যাপড্রাগন ৮১০ প্রোসেসর এর সাথে রয়েছে ৪০৪০ Mah ব্যাটারি যাতে করে টানা ৩১ ঘন্টা ব্যাটারি ব্যাক আপ পাওয়া যাবে।
সব দিক দিয়ে বিচার বিবেচনা করলে ; যাদের জন্য মূলত এই স্মার্টফোন তৈরী তাদেরই এটি কেনা ভালো ; সাধারন মানুষদের এরকম স্মার্টফোন কিনে টাকা অপচয় করার কোন প্রয়োজন নেই।

লেখক সম্পর্কে

তৌহিদুর রহমান

যা তোমার ভালো লাগে এবং তোমার জন্য মঙ্গলকর ; তুমি সেটা করতে থাকো। অন্যে কি বলে সেটা তোমার শোনার প্রয়োজন নেই।

কমেন্ট যোগ করুন

কমেন্ট করতে ক্লিক করুন